32 C
Guwahati
Saturday, October 1, 2022
More

    ৪৫ ঘন্টায় নাটকের অবসান, বিপ্লব দেবের ‘গণভোট’ বাতিল

    আগরতলা, ১০ ডিসেম্বর : টানা ৪৫ ঘন্টা নাটকের যবনিকা পড়ল। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেবের জনমত যাচাই বা গণভোটের জমায়েত বাতিল হয়ে গেল। বৃহস্পতিবার উপমুখ্যমন্ত্রী জিষ্ণু দেববর্মা সাংবাদিক বৈঠক করে এ কথা ঘোষণা করেন। গত রবিবার কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক বিনোদ সোনকরের সামনেই ত্রিপুরার একদল বিজেপি কর্মী স্লোগান তুলেছিলেন, ‘বিপ্লব হঠাও, ত্রিপুরা বাঁচাও!’ তারপর আচমকা মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাংবাদিক বৈঠক ডেকে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেব জানিয়ে দেন, তিনি মুখ্যমন্ত্রী থাকবেন কিনা তা যাচাই করতে জনমত নেবেন। ১৩ ডিসেম্বর আগরতলার আস্তাবল ময়দানে জমায়েতের ডেকে দেন বিপ্লব। সেদিন তিনি বলেন, ‘আমি ত্রিপুরাবাসীকে আবেদন করছি আপনারা রবিবার আস্তাবল ময়দানে আসুন। বলুন আপনারা বিপ্লবকে চান কি চান না। না চাইলে আমি চলে যাব!’ তার পরে গত ৪৫ ঘণ্টায় ত্রিপুরার রাজনীতি ছিল সরগরম।

    এদিকে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেব যেহেতু জনমত যাচাইয়ের ঘোষণা করে ফেলেছেন, তখন তা ফিরিয়ে নেওয়া অনেকটাই ছিল লজ্জার। এ ব্যাপারে বুধবার সন্ধ্যায় মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে দীর্ঘ বৈঠক চলে মন্ত্রী ও বিধায়কদের মধ্যে। যদিও সেই বৈঠকে বিজেপির সমস্ত বিধায়ক উপস্থিত ছিলেন না। মোট ৩৬ জনের মধ্যে ২৪ জন বিধায়ক উপস্থিত ছিলেন। সেখানে মুখ্যমন্ত্রীর গণভোট জমায়েত নিয়ে আলোচনা হয়। এদিন সাংবাদিক বৈঠকে উপমুখ্যমন্ত্রী জিষ্ণু দেববর্মা বলেন, ‘দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা এবং পর্যবেক্ষক বিনোদ সোনকরের সঙ্গে কথা হয়েছে। আমরা মুখ্যমন্ত্রীকে আবেদন করি ১৩ তারিখের সভা না করার জন্য। তিনি তাতে রাজি হয়েছেন।’

    উপমুখ্যমন্ত্রী জিষ্ণু দেববর্মা

    এদিকে বিজেপির ত্রিপুরা প্রভারি বিনোদ সোনকর এদিন বলেছেন, বিপ্লব দেব মুখ্যমন্ত্রী পদে থাকবেন না চলে যাবেন, এ-বিষয়ে সমাবেশে জনতার রায় নেওয়ায় কোনও প্রয়োজন নেই। মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তাঁর উচিত ত্রিপুরাবাসীর সেবা করে যাওয়া এবং দলীয় অভ্যন্তরীণ সমস্যা পার্টি হাইকমান্ডের উপর ছেড়ে দেওয়া। দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে আলোচনায় এই নির্দেশ এসেছে বলে জানান সোনকর। তাঁর কথায়, ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সর্বভারতীয় সভাপতিরও এ-বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। তাতে স্পষ্ট, আগামী রবিবার সমাবেশে জনতার রায় নিতে হবে না বিপ্লবকুমার দেবকে।

    Published:

    Follow TIME8.IN on TWITTER, INSTAGRAM, FACEBOOK and on YOUTUBE to stay in the know with what’s happening in the world around you – in real time

    First published

    ট্ৰেণ্ডিং