28 C
Guwahati
Saturday, November 26, 2022
More

    শিলচর মেডিক্যালে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু ঠেকাতে সোচ্চার হওয়ার ডাক

    শিলচর, ১৫ ফেব্রুয়ারি : কিছু কিছু মহল থেকে আওয়াজ উঠে ঠিক, তবে সংখ্যার স্বল্পতায় তা থেকে যায় ক্ষীণ হয়ে। এতে সরকারের তরফে কোনও হেলদোলই চোখে পড়ে না। সমস্যা থেকে যায় সেই তিমিরেই। যার দরুন বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুবরণ করতে হচ্ছে মানস-সায়ন্তনদের মতো কতজনকে। এই পরিস্থিতিতে শোনা গেছে আক্ষেপ, আর কতজন মানসের এমন মৃত্যুর পর সজোরে আওয়াজ তুলবেন বরাকের মানুষ।
    পথ দুর্ঘটনায় আহত হয়ে মৃত্যু ঘটেছে ভাস্কর মানস সিনহার। শিলচর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নিউরো সার্জারির ব্যবস্থা না থাকায় তাঁকে চিকিৎসার জন্য গুয়াহাটিতে নিয়ে যাবার কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু পথেই মৃত্যু ঘটে তাঁর। এর আগে গত ৯ অক্টোবর দুর্গোৎসবের সময় মৃত্যু ঘটে সায়ন্তন নামে এক যুবকের। মেডিক্যালে কার্ডিওলজি বিভাগের হাল  যথাযত না হওয়ায় বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু ঘটেছিল সায়ন্তন-এর। সায়ন্তনের মৃত্যুর পর আত্মপ্রকাশ করে ‘থাউজেন্ড সায়ন্তন’ নামে এক সংগঠন। মেডিক্যালের পরিকাঠামোগত খামতি দূর করার জন্য এই সংগঠনের কর্মকর্তারা বেশ কিছুদিন ধরে সোচ্চার। এবার মানস সিংহের মৃত্যুর পর তাঁরা ফের বিশেষভাবে সক্রিয় হয়ে উঠেছেন এ নিয়ে। রবিবার বিকেলে এ নিয়ে শহরে ক্ষুদিরাম মূর্তির পাদদেশে আহ্বান করা হয় এক সভা। তবে ঠিক সে সময় সেখানে ছাত্র সংগঠন এবিভিপি এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করায় তাঁরা স্থান পরিবর্তন করে চলে যান অদূরেই ক্যাপিটাল ট্রাভেলস মোড়ে।

    শিলচর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালকে এইমসের পর্যায়ে উন্নীতকরণ, সপ্তাহের সাতদিনই এনজিওপ্লাস্টি এবং নিউরোসার্জারির ব্যবস্থা করা, এই তিনটি দাবিকে সামনে রেখে সভায় বারবার উঠে আসে মেডিক্যালের পরিকাঠামোগত খামতি দূর করার ক্ষেত্রে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে উদাসীনতার  অভিযোগ। প্রয়োজনে দাবি পূরণে ভোট বয়কট-এরও প্রস্তাব করেন কেউ কেউ। তবে সবচেয়ে বড় হয়ে ওঠে, এত বড় মাপের সমস্যা যেখানে  ৪০ লক্ষ লোকের জীবন মরণের প্রশ্ন জড়িত, এ নিয়ে আম বরাকবাসীর উদাসীনতাকে ঘিরে আক্ষেপ। বক্তারা অভিমত ব্যক্ত করেন, গোটা উপত্যকা থেকে এনিয়ে আওয়াজ না উঠলে দাবি পূরণ সম্ভব নয় কোনও অবস্থায়ই। যার ফলশ্রুতিতে এভাবেই বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুর মিছিল অব্যাহত থাকবে।

    থাউজেন্ড সায়ন্তন গ্রুপের পাশাপাশি এদিন এই সভায় বিশেষভাবে সক্রিয় ছিলেন মার্চ ফর সায়েন্স-এর শিলচর চ্যাপ্টার এবং পিপলস সায়েন্স সোসাইটি, শিলচর-এর সদস্যরাও।সভায় বক্তব্য রাখেন শিক্ষাবিদ সৌরিন্দ্রকুমার ভট্টাচার্য, কমল চক্রবর্তী, সৌমিত্র শঙ্কর চৌধুরী, নিখিল পাল, কমলেশ ভট্টাচার্য, কৃশানু ভট্টাচার্য সহ মৃত মানস সিংহের বোন সুমিতা সিংহও। মেডিক্যাল-এর পরিকাঠামোগত খামতি দূর করা নিয়ে সোচ্চার হওয়ার জন্য সচেতনতা জাগাতে আগামী মঙ্গলবার সরস্বতী পূজার দিনে বিভিন্ন স্কুল-কলেজে এ সম্পর্কিত ব্যানার টাঙানোরও প্রস্তাব করা হয়। সুমিতা সিংহ জানান, তাঁর ভাই মানস সিংহ ছিলেন পরিবারের একমাত্র রোজগেরে সদস্য। তাঁর মৃত্যুতে অথৈ জলে পড়ে গেছে গোটা পরিবার। সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, আগামী বুধবার মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষের মারফৎ দাবি-দাওয়া সম্বলিত এক স্মারকপত্র প্রেরণ করা হবে রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে।

    আরো দেখুন : কোভিড ভ্যাক্সিন জীবনদায়ী ওষুধের তালিকায় স্থান পায়নি, সংসদে মন্ত্রী

    Published:

    Follow TIME8.IN on TWITTER, INSTAGRAM, FACEBOOK and on YOUTUBE to stay in the know with what’s happening in the world around you – in real time

    First published

    ট্ৰেণ্ডিং