27 C
Guwahati
Tuesday, September 27, 2022
More

    প্রধান বিচারপতি বোবদে’র ঘরে আড়াই কোটির প্রতারণা, গ্রেফতার কেয়ারটেকার

    নাগপুর, ১১ ডিসেম্বর : খোদ প্রধান বিচারপতির ঘরে প্রতারণার ঘটনা ঘটল। ভারতের প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদে’র পরিবারে আড়াই কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে পরিবারের অত্যন্ত বিশ্বস্ত কেয়ারটেকার ৪৯ বছর বয়সী তাপস ঘোষ। তাঁর বিরুদ্ধে বিচারপতি এস এ বোবদে’র মা মুক্তা বোবদে এই জালিয়াতির মামলা করেন। অবশেষে পুলিশ তাপস ঘোষকে নাগপুর থেকে গ্রেফতার করেছে। পুলিশ কমিশনার অমিতেশ কুমার জানান, এই জালিয়াতির ঘটনার তদন্তের জন্য ডিসিপি বিনিতা সাহুর তত্বাবধানে একটি বিশেষ দল গঠন করা হয়েছে।

    জানা গেছে, মুক্তা বোবদের নাগপুরে আকাশবাণী স্কোয়ারে একটি বাড়ি রয়েছে, যেটি তিনি বিয়ে ও বিভিন্ন অনুষ্ঠানের জন্য ভাড়া দেন। ২০০৭ সালে এই বাড়িটি দেখাশোনা করার জন্য তিনি তাপস ঘোষকে নিয়োগ করেন। এর জন্য তাঁকে ভাল টাকার বেতন দেওয়া হত। এ ছাড়াও বিয়ের বুকিং করলে কিছু কমিশনও পেতেন ঘোষ। তাঁর বয়স এবং স্বাস্থ্যের সুযোগ নিয়ে তাপস ঘোষ ও তাঁর স্ত্রী দিনের পর দিন মুক্তা বোবদে-কে ঠকিয়ে গিয়েছেন বলে অভিযোগ। লেনদেন সম্পর্কে তাঁকে ধোঁয়াশায় রেখেছিলেন। এমনকি বিয়ের বুকিং-এর জন্য যত টাকা পার্টির কাছ থেকে আদায় করতেন, তার সবটা মুক্তা বোবদের হাতে তুলে দিতেন না। খাতা কলমেও তাঁরা অনেক কারসাজি করেছেন বলে অভিযোগে বলা হয়েছে।

    এই জালিয়াতির কথা সামনে এসেছে লকডাউন শুরু হওয়ার পর। ওই সময় অনেক বিয়ের তারিখ পিছিয়ে বা বুকিং ক্যানসেল করে দেওয়া হয়েছিল। কয়েকটা বুকিং ক্যানসেল হওয়ার দরুন গ্রাহকেরা বার বার টাকা ফেরত চায়। কিন্তু টাকা ফেরত না পেতেই গন্ডগোল বাঁধে এবং সমস্ত ব্যাপারটি স্পষ্ট হয়ে যায়। গত আগস্টে মুক্তা বোবদে পুলিশের কাছে চুরি ও প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেন। এসআইটি কর্মকর্তারা নাগপুরের সীতাবুল্ডি পুলিশ স্টেশনে ঘোষ ও তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে আইপিসির ৪০৯ (বিশ্বাসের লঙ্ঘন), ৪২০ (প্রতারণা) ও ৪৬৭ (জালিয়াতি)- র মামলা দায়ের করেন এবং ঘোষকে গ্রেফতার করেন। তাঁকে ১৬ ডিসেম্বর কোর্টে পেশ করা হবে।

    Published:

    Follow TIME8.IN on TWITTER, INSTAGRAM, FACEBOOK and on YOUTUBE to stay in the know with what’s happening in the world around you – in real time

    First published

    ট্ৰেণ্ডিং