18 C
Guwahati
Wednesday, November 23, 2022
More

    দখল ছাড়তে নারাজ মিজোরা, ভেস্তে গেল জেলা প্রশাসন স্তরের বৈঠক

    শিলচর, ১ নভেম্বরঃ আসাম-মিজোরাম সীমান্ত সমস্যার সমাধান এখনও দূর অস্ত। লায়লাপুরের অর্থনৈতিক অবরোধ প্রত্যাহার করিয়ে মিজোরামে পন্য সামগ্রী পাঠানোর ব্যবস্থা করতেই কেন্দ্র থেকে চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে শনিবার জেলা প্রশাসন স্তরের বৈঠক ভেস্তে গেল। সীমান্তের এপারে লায়লাপুরে আসতেই দেওয়া হলনা কলাশিব জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের।দিনভর অপেক্ষা করে ফিরে এলেন কাছাড়ের জেলাশাসক, পুলিশ সুপার ও ডিএফও।

    দ্বিতীয় দফার অর্থনৈতিক আন্দোলনের চতুর্থ দিনে কাছাড় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মিজোরামের কলাশিব জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের নিয়ে শনিবার বেলা ১১টায়    আসাম-মিজোরাম সীমান্তের লায়লাপুর ফরেস্ট বিট অফিসে সীমান্তে উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে এক দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল। সকাল দশটায় লায়লাপুর পৌঁছান  কাছাড়ের জেলাশাসক কীর্তি জল্লি, পুলিশ সুপার বিএল মিনা, ডিএফও সানিদেও চৌধুরী, সোনাইর সার্কেল অফিসার সুদীপ নাথ। তারা সকাল ১০টা থেকে লায়লাপুর ফরেস্ট বিট অফিসে মিজোরামের কলাশিব জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের আসার অপেক্ষা করতে থাকেন। দুপুর ১২টায় কলাশিব জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের তরফ থেকে কাছাড়ের জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের জানানো হয়, বৈঠকের জন্য কলাশিবের জেলাশাসক, পুলিশ সুপার, এসডিও সিভিল প্রমুখ আসতে চাইলে মিজোরামের   ভাইরেংটিতে তাদের আটকে দেয় মিজো সংগঠন ওয়াইএমএ, এমজেডপি সহ স্থানীয় জনতা। অবশেষে বৈঠকই ভেস্তে যায়।

    জানা গেছে, মিজোরামের ভাইরেংটিতে বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যরা জেলাপ্রশাসনের কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন তারা আলোচনা চান না। দখলকৃত আসামের ভূমি থেকে এক চুলও পিছনে সরতে নারাজ তারা। বলপ্রয়োগের মাধ্যমে আরও জমির দখল নিতে চান। 

    এদিকে বিভিন্ন সংগঠনের ডাকা  দ্বিতীয় দফার আন্দোলনের চতুর্থ দিন কাকভোরে মিজোরামের ২০-২৫টি ওয়েল ট্যাংকার নিরাপত্তা ব্যবস্থার সাহায্যে মিজোরাম যেতে চাইলে পিকেটারদের বাধার মুখে পড়ে ফিরে আসতে বাধ্য হয়। এদিন সকালের ঘটনা বাদ দিলে পুরো দিন আন্দোলন ছিল শান্তিপূর্ণ।  এদিনও কোনও পণ্যবাহী লরি মিজোরাম যেতে দেওয়া হয়নি।অবরোধ আন্দোলন আজ পঞ্চম দিন রবিবারও অব্যাহত।

    Published:

    Follow TIME8.IN on TWITTER, INSTAGRAM, FACEBOOK and on YOUTUBE to stay in the know with what’s happening in the world around you – in real time

    First published

    ট্ৰেণ্ডিং