19 C
Guwahati
Monday, November 28, 2022
More

    গ্রামোন্নয়নের কাজে অনিয়ম, জিপি সভানেত্রীর পরিবারেই প্রধানমন্ত্রী আবাসের ৪টি ঘর!

    শিলচর, ১২ অক্টোবর : চতুর্দশ অর্থ কমিশনের অধীনে বিভিন্ন প্রকল্পের কাজে ব্যাপক অনিয়ম চলছে। শিলচরের বিধায়ক দিলীপকুমার পালের পৃষ্টপোষকতায় দুর্নীতি সংগঠিত হচ্ছে বলে সরাসরি অভিযোগ তুলল কংগ্রেস। দলের তারাপুর মণ্ডল কমিটি তথ্য-প্রমাণ সহ অনিয়মের উদাহরণ সামনে এনেছে। সিসি ব্লকের রাস্তার কাজে নিয়ম অনুযায়ী যেখানে স্যান্ড গ্রেভেল ব্যবহার করার কথা, বাস্তবে সেটা ছাড়াই অত্যন্ত নিম্নমানের কাজ করা হচ্ছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় তারাপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় চলছে ব্যাপক অনিয়ম। ১৬০ জনের সুবিধাপ্রাপকের নামের তালিকা থেকে প্রথম দফায় যে ক’জনকে ঘর বরাদ্দ করা হয়েছে, তার মধ্যে খোদ জিপি সভানেত্রী স্বপ্না পালের পরিবার ও ঘনিষ্টদের রয়েছে চারটি। শিলচরে এক সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে সরকারি কাজের বিভিন্ন দুর্নীতি ও অনিয়মের ব্যাপারে তথ্য তুলে ধরেন তারাপুর মণ্ডল কংগ্রেস সভাপতি তথা প্রাক্তন জিপি সভাপতি জগজ্যোতি নাথ।

    তিনি জানান, চতুর্দশ অর্থ কমিশনের অধীনে তারাপুর জিপি এলাকায় ৫ কোটি টাকারও বেশি অর্থে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ চলছে। যেখানে ৩০ শতাংশ কাটমানি হিসেবে নিতে হচ্ছে সংশ্লিষ্ট তহবিলে। এছাড়া বিভিন্ন সামগ্রী কেনার ক্ষেত্রে ২ বার করে জিএসটি গুণতে হচ্ছে রূপায়ণ কমিটিকে। এর ফলে বাস্তবে যে কাজের মান খারাপ হবে তা সহজেই অনুমেয়। জগজ্যোতি নাথ অসমিয়াবস্তি জনতা লেনের সিসি ব্লকের কাজকে উদাহরণ হিসেবে তুলে ধরেন। তিনি জানান, ওই রাস্তার কাজে সেন্ড গ্রেভেল ব্যবহার করা হয়নি। কাজ সম্পূর্ণ হওয়ার পর গ্রামোন্নয়ন বিভাগের তরফে সরজমিনে তদন্তে যাওয়া কর্মকর্তাদের সামনে বিভিন্ন অভিযোগ পেশ করা হলেও এতে কেউ পাত্তা দেননি। কর্মকর্তাদের মধ্যে ছিলেন জেলা পরিষদ সভাপতি অমিতাভ রাই, জিপি সভানেত্রী স্বপ্না পাল, জেলা পরিষদ সদস্য রামকুষ্ণ সিনহা, জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার সপ্তজিৎ দে, বিধায়ক ও সাংসদ প্রতিনিধিরা। শুধু ওই রাস্তাই নয়, তারাপুর জিপির প্রতিটি সড়কের কাজে ব্যাপক অনিয়ম চলছে বলে জগজ্যোতি অভিযোগ করেন।

    প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অনিয়ম সম্পর্কে তিনি বলেন, জিপি সভানেত্রী স্ব্প্না পালের স্বামী বিধানরঞ্জন পাল, ভাসুর ও দেওর যথাক্রমে বিকাশরঞ্জন পাল ও মনোজ পাল এবং তাদেরই পরিবারের ঘনিষ্ট আর্থিকভাবে অত্যন্ত স্বচ্ছল অলক চক্রবর্তীর নামে এবার ঘর বরাদ্দ হয়েছে। ফলে বিজেপি সরকারের স্বচ্ছতার স্লোগান স্রেফ ধাপ্পাবাজি বলে জগজ্যোতি উল্লেখ করেন। পাশাপাশি তিনি তারাপুর জিপি এলাকার প্রতিটি কাজের নিরপেক্ষ তদন্তক্রমে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান। এ দিনের সাংবাদিক সম্মেলনে মণ্ডল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অনিল নাথ মজুমদার, সম্পাদকত্রয় অমল দাস, অরুণ গোস্বামী ও সুব্রত দাস সহ, জয়দীপ দাস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

    Published:

    Follow TIME8.IN on TWITTER, INSTAGRAM, FACEBOOK and on YOUTUBE to stay in the know with what’s happening in the world around you – in real time

    First published

    ট্ৰেণ্ডিং